সংবাদ শিরোনাম
Home / খোলামত / জীবনের এক বিভীষিকাময় ঈদের অপেক্ষায়!

জীবনের এক বিভীষিকাময় ঈদের অপেক্ষায়!

ঈদ মানেই আনন্দ।ঈদ মানেই আমাদের ছেলেবেলা। কিন্তু জীবনের সবচেয়ে নিরামিষ ঈদ হয়তো এবারই হতে যাচ্ছে। একেতো এখন ছেলাবেলার সেই আবেগ আর পাইনা তার মধ্যে এবার দিলো করনার হানা।  দেশের বাড়িতে ঈদের অন্যরকম এক আনন্দ ছিলো।বাবা ঢাকা থেকে আসতো। আমাদের তিন ভাইয়ের জন্য নতুন জামা নিয়ে আসতো।  ঈদ আসলেই স্মৃতির পাতায় ভেসে ওঠে শৈশবের সেই ভালোবাসাময় সাদামাটা ঈদের দিনগুলো। আমাদের ছোটবেলায় এতো চাকচিক্য ছিলো না। এখনকার ভাষায় বলা যায় ‘সিম্পলের মধ্যে গরজিয়াস’ কাপড়েই আমাদের ঈদ সারতে হতো বছরে আমরা দুবার নতুন জামা পেতাম।  ঈদের জামার মধ্যে ছিলো ভিন্নরকম এক অনুভূতি। বন্ধু-বান্ধব, পাড়া-পড়শি সবাই যেহেতু ঈদের দিনে নতুন জামা পড়তো সুতরাং জামা নিয়ে একটা প্রতিযোগিতা ছিলো। কার জামা কত সুন্দর তা নিয়ে চলতো তর্কাতর্কি।

ঈদের দিন ভোর থেকে রান্নার গন্ধে ঘুম ভেঙে যেতো। সেমাই, পিঠা আর কোরমার গন্ধে বাসা মো মো করতো।আমরা বাড়ির আসপাশের সবাই এক  সঙ্গে দলবেধে ঈদগাওয়ে যেতাম। নামাজে সেজদায় যাওয়ার সময় মাথা তুলে দেখতাম সারিবদ্ধ সাদা-সাদা ঢেউ-সাজানো রূপ। কিযে অদ্ভুত সুন্দর লাগতো । নামাজ শেষে সবার সাথে কোলাকুলি। নাইনে পড়াকালে বাড়তি এক অভিযান যোগ হয়। ঈদ নামাজের পর আব্বার সাথে দাদা-দাদীর কবর যিয়ারত করতে যেতাম বাড়ির সামনের কবরস্থানে। এরপর প্রতিবেশীদের ঘরে চলে যেতাম সারাদিন এদিক সেদিক ঘুরে বেড়াতাম বন্ধুদের সাথে আড্ডায় হইহুল্লোড় করে অনেক ভালো একটা সময় কাটতো আমাদের।

আমাদের শৈশবের ঈদ আর এখনকার ঈদের মধ্যেই অনেক ফারাক। অনেককিছু পেতাম না, কিন্তু, যা কিছু পেতাম তা তাড়িয়ে তাড়িয়ে উপভোগ করতাম।  জন্মের পর থেকে এতো বছর নিরবিচ্ছিনভাবে যেমন তেমনই হোক ঈদের একটা আনন্দ উপভোগ করেছি। এখন অদ্ভুত এক অন্ধকারে ঢেকে আছে পৃথিবী। চারিদিকে মৃত্যু, ভয়, অনাহার ও হাহাকারের ছবি। জীবনে ১ম বারেরমত ঈদ উল ফিতর দেশের বাড়িতে না গিয়ে ঢাকায় করতে হচ্ছে! যা শুধু কষ্টইনা অত্যান্ত হাহাকারের ও বটে। আমার মত অনেকেই এবার অনেকটাই  এমন  ঈদ কাটবে। হবেনা এবার আর আসপাশের মানুষগুলোদের নিয়ে ঈদগায়ে কোলাকুলিও! আল্লাহ আমাদের এই মহামারী থেকে খুব শিগ্রই মুক্তি দিবে এই কামনায়।

লেখকঃ সম্পাদক, সময় এক্সপ্রেস নিউজ

About নাঈম সজল

এ সম্পর্কিত আরো খবর

চমেকহা’র নতুন আইডিএ কমিটিঃ আহ্বায়ক ডাঃ ওসমান, সদস্য সচিব ডাঃ তাজওয়ার

মেডিকেল কলেজে ৫ বছর এমবিবিএস অধ্যয়ন শেষে ফাইনাল প্রফেশনাল পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পর নতুন ডাক্তারদের …

দেশে করোনায় মারা গেছেন ১৫৮৭ পুরুষ, নারী ৪১০ জন

দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করা মানুষের সিংহভাগই পুরুষ। নারীদের মৃত্যুর হার যেখানে কুড়ি শতাংশের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *