Home / গণমাধ্যম / অনলাইন পোর্টালের নিবন্ধন ফি ১০ হাজার টাকা, নবায়ন ফি ৫ হাজার

অনলাইন পোর্টালের নিবন্ধন ফি ১০ হাজার টাকা, নবায়ন ফি ৫ হাজার

অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও দৈনিক পত্রিকার অনলাইন ভার্সনকে নিবন্ধনের আওতায় আনছে সরকার। নিবন্ধন ফি ১০ হাজার টাকা এবং প্রতিবছর নবায়ন ফি ৫ হাজার টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। শিগগিরই এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে।

গত ৩০ জুলাই প্রথম ধাপে ৩৪টি নিউজ পোর্টালকে নিবন্ধনের অনুমতি দিয়েছে তথ্য মন্ত্রণালয়। ৩ সেপ্টেম্বর ঢাকা মহানগর ও বিভাগীয় শহরের ৯২টি দৈনিক পত্রিকার অনলাইন ভার্সনকে নিবন্ধনের অনুমতি দেয়া হয়েছে।

প্রথম ধাপে ৩৪টি অনলাইন পোর্টালকে নিবন্ধনের অনুমতি দেওয়ার পর পোর্টালের নিবন্ধন ও পরিচালনার জন্য ফি নির্ধারণ করে তা অর্থ বিভাগে পাঠায় তথ্য মন্ত্রণালয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে অর্থ বিভাগ নিবন্ধন ফি ১০ হাজার টাকা নির্ধারণ করে। প্রতিবছর নিবন্ধন নবায়ন ফি ৫ হাজার টাকা, সারচার্জ ২ হাজার টাকা (এক মাসের মধ্যে পরিশোধ হলে) ধার্য করা হয়।

চলতি মাসে রেডিও ও টেলিভিশনের অনলাইন ভার্সন এবং আইপি টিভির নিবন্ধনের তালিকা প্রকাশ করা হবে। অনলাইন পোর্টালের মতো রেডিও ও টেলিভিশনের অনলাইন ভার্সন এবং আইপি টিভির নিবন্ধন ফি ও নবায়ন ফি একই পরিমাণ হবে।

জাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা-২০১৭ (সংশোধিত, ২০২০) এর ২.১ এর এক অনুচ্ছেদ মোতাবেক কমিশন গঠন না হওয়া পর্যন্ত তথ্য অধিদপ্তরকে নিবন্ধন দেওয়ার ক্ষমতা দেবে তথ্য মন্ত্রণালয়।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম জানিয়েছেন, অনলাইন নিউজ পোর্টাল নিবন্ধনের যোগ্যতা, নিবন্ধন ফি, লাইসেন্সপ্রাপ্ত টেলিভিশন চ্যানেল ও বেতারের নিউজ পোর্টাল হিসেবে প্রচারকার্য পরিচালনা, আইপি টিভি ও ইন্টারনেট রেডিওর সম্প্রচার বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোনো নির্দেশনা ছিল না। এসব বিষয় অ্যাড করেছে তথ্য মন্ত্রণালয়।

সূত্র জানায়, অনলাইন গণমাধ্যমে বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন করা হচ্ছে কি না, তা পর্যবেক্ষণের জন্য নিবন্ধনের ব‌্যবস্থা করা হয়েছে। অনলাইন নিবন্ধনের জন্য প্রায় ৮ হাজার আবেদন জমা পড়েছে। এর মধ্যে প্রাথমিকভাবে ৩ হাজার ৫৯৭টি পোর্টালের বিষয়ে তদন্ত করতে সেগুলোর তালিকা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে সেগুলো সরকারের বিভিন্ন সংস্থার কাছে পাঠানো হয়েছে। ইতোমেধ্যে প্রায় ২০০টি অনলাইনের বিষয়ে তদন্ত করা হয়েছে। তথ্য মন্ত্রণালয় এগুলোর মধ‌্যে থেকে যাচাই-বাছাই করে ধাপে ধাপে নিবন্ধনের তালিকা প্রকাশ করবে।

তথ্য মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেছেন, নামসর্বস্ব অনলাইন পোর্টাল করতে দেওয়া হবে না। পাশাপাশি যারা বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন করে না, সেসব ভুয়া পোর্টালের বিরুদ্ধে অ্যাকশনে যাবে সরকার। নিবন্ধন পাওয়ার পর সঠিক সংবাদ প্রকাশ না করলে নিবন্ধন বাতিল করা হবে। অনলাইন পোর্টালের জন্য গাইডলাইন তৈরি করা হয়েছে। এর আলোকে তাদের চলতে হবে। নিবন্ধন পাওয়ার পর বেশকিছু শর্ত মেনে চলতে হবে।

তিনি আরো বলেন, প্রথম ধাপে নিবন্ধনের জন্য অনুমতি পাওয়া ৩৪টি পোর্টাল মনিটরিং করা হচ্ছে। যেসব অনলআইন বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন করবে না, পাশাপাশি যাদের মানসম্মত অফিস, পর্যাপ্ত জনবল থাকবে না, তাদের প্রাথমিকভাবে জানানো হবে। এরপরও যদি না শোধরায় তাহলে নিবন্ধন বাতিলসহ আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

About সময় এক্সপ্রেস নিউজ ডেস্ক

এ সম্পর্কিত আরো খবর

‘মধ্যরাতে তরুণীকে তুলে নিয়ে আড়াই ঘণ্টায় ধর্ষণ করেছে ১০ জন’

চট্টগ্রাম নগরীর চান্দগাঁওতে এক তরুণী সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (৮ অক্টোবর) দিবাগত রাত সাড়ে …

আমার মনটা পড়ে থাকলো, এ সড়ক দিয়ে গাড়িতে কবে যাবো: প্রধানমন্ত্রী

সৌন্দর্যের লীলাভূমি, হাওরের বিস্ময় ও রাষ্ট্রপতির স্বপ্নের কিশোরগঞ্জ জেলার ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম সড়ক (অল ওয়েদার সড়ক) দেখতে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *