সংবাদ শিরোনাম
Home / অর্থনীতি / ৫ “পচা” কোম্পানির শেয়ার দরে উল্লম্ফন

৫ “পচা” কোম্পানির শেয়ার দরে উল্লম্ফন

লোকসানে হাবুডুবু খাচ্ছে কোম্পানি, কারো কারো উৎপাদনও বন্ধ। কিন্তু স্বল্পমূলধনী কোম্পানি হওয়ায় বারং বার সুযোগ নিচ্ছে কারসাজি চক্র।

সোমবার সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসে মাত্র ৬৮টি কোম্পানির দর বাড়লেও লোকসানি ও দূর্বল মৌলভিত্তির “জেড” ক্যাটাগরির ৫টি কোম্পানির শেয়ার দর বেড়েছে ৯ শতাংশের বেশি। বাজারের সাথে সম্পৃক্ত সচেতন বিনিয়োগকারীরা বিষয়টি ভাল ভাবে নেন নি।

তারা বলেন, পুঁজিবাজার যে কার নিয়ন্ত্রনে আজকের বাজারের লেনদেন দেখলেই তা বুঝা যায়। কারসাজি চক্রের সক্রিয়তা খালি চোখেই দেখা যায়। কিন্তু নিয়ন্ত্রক সংস্থা ও স্টক এক্সচেঞ্জ সার্ভিল্যান্স সফটওয়্যার দিয়েও তা খুজে বের করতে পারছে না।

শেয়ার দরের উল্লম্ফন হওয়া কোম্পানিগুলো হলো- মেঘনা পিইটি, মেঘনা কনডেন্সড মিল্ক, জিল বাংলা সুগার, ইমাম বাটন ও শ্যামপুর সুগার।

মেঘনা পিইটি

তথ্য পর্যালোচনা করে দেখা যায়, সোমবার মেঘনা পিইটির শেয়ার দর বেড়েছে ১০ শতাংশ। এদিন কোম্পানিটির শেয়ার ৯ টাকা থেকে বেড়ে সর্বোচ্চ ৯.৮০ টাকায় লেনদেন হয়েছে।

এর আগের দুই কার্যদিবস অর্থাৎ বৃহস্পতিবার ও রোববার কোম্পানিটির দর বেড়েছে। রোববার কোম্পানিটির দর বেড়েছে ১০ শতাংশ। বিগত তিন কার্যদিবসে কোম্পানিটির শেয়ার ৮ টাকা থেকে বেড়ে ৯.৮ টাকায় লেনদেন হচ্ছে। অর্থাৎ এসময় কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি দর বেড়েছে ১.৮ টাকা বা ২২.৫ শতাংশ।

উল্লেখ্য, বিগত ১ যুগের অধিক সময়েও কোম্পানিটির ডিভিডেন্ড প্রদানের কোন রেকর্ড নাই।

মেঘনা কনডেন্সড মিল্ক:

তথ্য পর্যালোচনা দেখা যায়, খাদ্য ও আনুষাঙ্গিক খাতের তালিকাভুক্ত কোম্পানিটির পরিশোধিত মূলধন ১৬ কোটি টাকা হলেও কোম্পানিটির পুঞ্জিভূত লোকসান ৮৬ কোটি ৫৩ লাখ টাকা। অর্থাৎ কোম্পানিটির মূলধনের তুলনায় দায় ৫ গুণের বেশি।

কিন্তু বিগত ২ কার্যদিবস যাবত বিক্রেতা সংকটে হল্টেড হচ্ছে কোম্পানিটি। সোমবার কোম্পানিটির শেয়ার দর বেড়েছে ১০ শতাংশ। দুই কার্যদিবসের উত্থানে কোম্পানিটির শেয়ার ইস্যুমূল্য অতিক্রম করেছে।

উল্লেখ্য, বিগত ১ যুগের অধিক সময়েও কোম্পানিটির ডিভিডেন্ড প্রদানের কোন রেকর্ড নাই।

জিল বাংলা সুগার:

তথ্য পর্যালোচনা দেখা যায়, খাদ্য ও আনুষাঙ্গিক খাতের তালিকাভুক্ত কোম্পানিটির পরিশোধিত মূলধন ৬ কোটি টাকা হলেও কোম্পানিটির পুঞ্জিভূত লোকসান ২৯৯ কোটি ৪৭ লাখ টাকা। অর্থাৎ কোম্পানিটির মূলধনের তুলনায় দায় ৫০ গুণের বেশি।

কিন্তু সোমবার কোম্পানিটির দর বেড়েছে ৯.৯৬ শতাংশ। এসময় কোম্পানিটির শেয়ার ২৮.১ টাকা থেকে বেড়ে ৩০.৯০ টাকায় লেনদেন হয়েছে। এদিন কোম্পানিটির শেয়ার বিক্রেতা সংকটে হল্টেড হয়েছিল।

এছাড়াও ইমাম বাটন ও শ্যামপুর সুগার মিলসের শেয়ার দরও যথাক্রমে ৯.৯৫৭ শতাংশ ও ৯.৮৫২ শতাংশ বেড়েছে।

About নাঈম সজল

এ সম্পর্কিত আরো খবর

হোটেল কক্ষে তরুণীর ঝুলন্ত মরদেহ

পটুয়াখালী পৌর শহরের গোরস্থান রোড এলাকায় আবাসিক হোটেল সাউথ কিংয়ের একটি কক্ষ থেকে পিংকি (২৫) …

বিকাশ থাকলেই যেভাবে পাবেন সিটি বাংকের ঋণ

বাংলাদেশের শীর্ষ মোবাইলে আর্থিক সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান বিকাশের গ্রাহকরা জরুরি প্রয়োজনে মোবাইলের মাধ্যমে সিটি ব্যাংক থেকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *