সংবাদ শিরোনাম
Home / আন্তর্জাতিক / মৃত্যুর মুখোমুখি পাঁচ সিংহ, হৃদয়স্পর্শী ছবি ভাইরাল

মৃত্যুর মুখোমুখি পাঁচ সিংহ, হৃদয়স্পর্শী ছবি ভাইরাল

সুদানের রাজধানী খারটৌমে একটি পার্কে চূড়ান্ত অপুষ্টির শিকার পাঁচটি সিংহর ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোড়ন তুলেছে। ওই পাঁচ সিংহকে বাঁচাতে সোশ্যাল মিডিয়ায় বড়সড় আকারে প্রচার শুরু হয়েছে।

সিংহগুলোর খাবার ও প্রতিষেধকের অভাব। এতে করে না খেতে পেয়ে মৃত্যুর মুখোমুখি সেই পাঁচ সিংহ।

সিংহগুলোকে বাঁচাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক প্রচার শুরু হয়েছে। রুগ্ন সিংহগুলিকে নিয়ে বিভিন্ন তথ্য, ছবি শেয়ার করে সংশ্লিষ্ট মানুষ প্রতিষ্ঠানগুলির কাছে পশুগুলির সাহায্যে এগিয়ে আসার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন ওসমান সালিহ নামের এক ব্যক্তি। সিংহগুলোর এই করুণ দশার ছবি মূহুর্তেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। পরে তাদের অবস্থা খতিয়ে দেখতে বহু স্বেচ্ছাসেবী পার্কে এসেছেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের একটি পোস্টে সালিহ জানান, ডোনেটররা সিংহগুলোর জন্য তাজা মাংস নিয়ে এসেছেন। সঙ্গে অ্যান্টিবায়োটিকস ও আইভি ড্রিপসও যোগাড় হচ্ছে।

সিংহগুলিকে বাঁচানোর উদ্যোগ গ্রহণের জন্য অনেকেই তার প্রশংসা করেছেন এবং পোস্টগুলোর কমেন্টে তাকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

পার্কের পশু চিকিৎসকরা বলেন, গত কয়েক সপ্তাহ ধরে সিংহগুলোর শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটেছে। কয়েকটি সিংহের ওজন প্রচুর কমে গেছে।

পার্কের ব্যাবস্থাপক এসামেলদ্দিন হজ্জর হতাশাব্যঞ্জকভাবে সংবাদসংস্থাকে জানান, সিংহগুলোর জন্য খাবার সবসময় পাওয়া যায় না। মাঝেমধ্যে নিজেদের অর্থে সিংহগুলোর জন্য খাবার কিনতে হয়।

পার্কের এক তত্ত্বাবধায়ক বলেন, সিংহগুলো নানা রোগে ভুগছে। ওরা অসুস্থ হয়ে পড়েছে, মনে হচ্ছে অপুষ্টির শিকার।

ইন্টারন্যাল ইউনিয়ন ফর কনজার্ভেশন অফ নেচার আফ্রিকার সিংহের এই প্রজাতিকে বিপন্নতার মুখোমুখি বলে চিহ্নিত করেছে।

About সময় এক্সপ্রেস নিউজ ডেস্ক

এ সম্পর্কিত আরো খবর

‘আবারও বলছি, কোনও মুসলিমের নাগরিকত্ব যাবে না’

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের (সিএএ) সমর্থক-বিরোধীদের মধ্যে ভারতের রাজধানী দিল্লিতে সংঘর্ষের ঘটনায় প্রতিদিনই বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। …

পাপিয়ার সঙ্গে অপকর্মে জড়িতরা দ্রুতই ধরা পড়বে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল জানিয়েছেন, নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের বহিষ্কৃত সাধারণ সম্পাদক শামীমা নুর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *