সংবাদ শিরোনাম
Home / সময় স্পেশাল / অমর একুশে বইমেলায় জনস্রোত

অমর একুশে বইমেলায় জনস্রোত

প্রতি বছরের মতো এবারও অমর একুশে ফেব্রুয়ারি এবং আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে জেগে উঠেছে মানুষ। ভাষা শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে অনেকেই সাদাকালো পোশাক পরে মেলায় এসেছেন। শিশুদের হাতে ও মুখে আঁকা রয়েছে শহীদ মিনারের ছবি। কেউ এসেছেন বাঙালির সাজে। শাড়ির সঙ্গে তাদের মাথায় বাহারি রঙের ফুল শোভা পাচ্ছে।

পূর্বের দেওয়া ঘোষণা অনুযায়ী শুক্রবার (২১ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৮টায় দর্শনার্থীদের জন্য খুলে দেওয়া হয় মেলার ফটক। ছুটির দিন হওয়ার কারণে শুরু থেকেই মেলায় ভিড়টা একটু বেশি।

শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে ছুটছেন বাংলা একাডেমি ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বইমেলা প্রাঙ্গণে। অনেকেই আবার শহীদ মিনার, টিএসসি, দোয়েল চত্বর, পলাশী এলাকায় কিছু সময় নিজেদের পরিচিতজনের সঙ্গে পার করছেন, আড্ডা দিচ্ছেন। তবে পুরো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়জুড়ে ও বইমেলা প্রাঙ্গণে দর্শণার্থীদের ভিড় চোখে পড়ার মত।

‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি’ অথবা ‘মোদের গরব মোদের আশা/আমরি বাংলা ভাষা’ গাইতে গাইতে দলবেধে আসতে থাকে বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক সংগঠন, বিশিষ্ট ব্যক্তি থেকে শুরু করে মুটে-মজুর পর্যন্ত।

তবে প্রভাতফেরী শেষ করে প্রায় সবাই ছুটে আসছে বাংলা একাডেমির অমর একুশে গ্রন্থমেলায়। বাংলা একাডেমি, সোহরাওয়ার্দি থেকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার পর্যন্ত রাস্তা একাকার মানুষের পদচারণায়।

এবারের মেলার প্রথম ২০ দিনে প্রায় তিন হাজার নতুন বই প্রকাশ পেলেও ভাষা আন্দোলন নিয়ে বই ৫০টি বইয়েরও খোঁজ মেলেনি। যে কয়েকটি বই চোখে পড়ল, তার বেশিরভাগই আগে প্রকাশিত প্রবীণ লেখকদের বই। অবস্থাদৃষ্টে মনে হতে পারে, ভাষা আন্দোলন নিয়ে নতুন লেখকদের আগ্রহ কম।

প্রকাশকরা জানান, তারা ভাষা আন্দোলন নিয়ে তেমন উল্লেখযোগ্য পাণ্ডুলিপি পান না। মাসব্যাপী গ্রন্থমেলার অন্যতম উদ্দেশ্যই হলো অমর একুশের স্মরণ। অন্যসব বইয়ের ভিড়ে ভাষা আন্দোলনের বই রাখতেও আগ্রহী তারা। কিন্তু নতুন লেখকদের মাঝে এ ধরনের লেখালেখির আগ্রহ কম। যদিও ভাষাসংগ্রামীদের কেউ কেউ এ বিষয়ে অবিরত লিখে চলেছেন।

যাত্রাবাড়ী থেকে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে আসা চাকরিজীবী আবদুল হক বলেন, এবার আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস পালনের দিনটি ছুটির দিন হওয়াতে পরিবার নিয়ে ঘুরতে এসেছি। শহীদ মিনারে গিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে এখন বইমেলায় এলাম।

তার মতো শত শত তরুণ-তরুণীর ভিড়ে মেলা প্রাঙ্গণ যেমন মিশে গেছে শহীদ মিনারে গিয়ে। তেমনি শাহবাগ, টিএসসির জনস্রোতে একাকার সোহরাওয়ার্দী, দোয়েল চত্বরসহ পুরো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা। এ এক অন‌্য রকম মিলন মেলা।

About সময় এক্সপ্রেস নিউজ ডেস্ক

এ সম্পর্কিত আরো খবর

চমেকহা’র নতুন আইডিএ কমিটিঃ আহ্বায়ক ডাঃ ওসমান, সদস্য সচিব ডাঃ তাজওয়ার

মেডিকেল কলেজে ৫ বছর এমবিবিএস অধ্যয়ন শেষে ফাইনাল প্রফেশনাল পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পর নতুন ডাক্তারদের …

দেশে করোনায় মারা গেছেন ১৫৮৭ পুরুষ, নারী ৪১০ জন

দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করা মানুষের সিংহভাগই পুরুষ। নারীদের মৃত্যুর হার যেখানে কুড়ি শতাংশের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *